Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Monday, 10 January 2022

মাদক তৈরির কারখানার হদিশ, উদ্ধার ৬৫ কোটি টাকার হেরোইন

 ‌‌

The-fate-of-the-drug-factory

সমকালীন প্রতিবেদন : বিপুল পরিমান মাদক সহ মাদক তৈরির কারখানার সন্ধান মিললো এই রাজ্যে। ওই কারখানা থেকে উদ্ধার হয়েছে ৬৫ কোটি টাকার হেরোইন। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে নগদ ২০ লক্ষ ১০ হাজার ১০০ টাকা। দুভাগে গ্রেপ্তার হয়েছে ৬ জন। এই সাফল্য রাজ্য পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের। এদিনের অভিযানে ১৩ কেজি হেরোইন, মাদক তৈরির নানা সরঞ্জাম এবং নগদ টাকা উদ্ধার হয়েছে।


পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বর্ধমান জেলার পূর্ব বর্ধমান থানার শ্রীপল্লি এলাকার একটি বাড়িতে এই মাদক তৈরির কারখানাটি চলছিল। এর পাশাপাশি আরও একটি কারখানা রয়েছে বর্ধমানের ক্যানালের ধারে। এই কারখানা চালাচ্ছিল বাবর আলি মন্ডল এবং তার ছেলে রাহুল মন্ডল। দিন দুয়েক আগে হাওড়ার গোলাবাড়ি থানা এলাকা থেকে এসটিএফ ২ জন মণিপুর এবং ২ জন ওডিষার বাসিন্দাকে গ্রেপ্তার করে। মনিপুরের ওই দুই বাসিন্দা হেরোইন সরবরাহ করতে এসেছিল ওডিষার দুই মাদক কারবারীকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেই এই কারখানার হদিশ মেলে। 


বর্ধমানের যে বাড়িটিতে এই মাদক তৈরির কারবার চালানো হচ্ছিল, সেই বাড়ির চারপাশে সিসি ক্যামেরা লাগানো। বাইরের কেউ যদি ওই বাড়ির কাছাকাছি আসে, তাহলে সহজেই যাতে কারবারীরা তা বুঝতে পারে, তারজন্যই এই ব্যবস্থা। বর্ধমানের ক্যানাল ধারের বাড়িতে হেরোইন তৈরি হতো। আর তা প্যাকিং হতো শ্রীপল্লির বাড়িতে। মুর্শিদাবাদের লালগোলা থেকে হেরোইন তৈরির কাজ শিখেছিল বাবর। মনিপুর থেকে কাঁচামাল এনে এখানে হেরোইন তৈরি করতো সে। এরপর তা প্যাকিং হয়ে এই রাজ্যের পাশাপাশি ওডিষা এবং মণিপুরেও চালান করা হতো। আর এইভাবে গত ৩ বছর ধরে তারা কোটি কোটি টাকার হেরোইন পাচার করেছে।



 



No comments:

Post a Comment