Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Sunday, 26 December 2021

দিনের টুকিটাকি : ‌২৬ ডিসেম্বর, ২০২১

মাওবাদী পোস্টার

আদিবাসীদের একাংশ ডেউচা পাচামি প্রস্তাবিত এলাকায় কয়লা খনি না করতে দেওয়ার সিদ্ধান্তে অনড়। খনি করা এবং না করা– দুপক্ষের নানা কর্মকান্ডে গত কয়েক দিন ধরে মোহাম্মদ বাজারের প্রস্তাবিত খনি অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়ছে। তারই মধ্যে সেখানে মাওবাদী পোস্টার দেখা গেল। শনিবার রাতে হরিণসিঙ্গা থেকে ঝাড়খণ্ডের কাটপাটি যাওয়ার পথে কয়েকটি দেওয়ালে এবং গাছে মাওবাদী নামাঙ্কিত বেশ কয়েকটি পোস্টার লক্ষ্য করা যায়। সেখানে লাল কালিতে সাদা কাগজের উপর হিন্দিতে লেখা 'হাম লোগ আপকে সাথ হে'‌। এই পোস্টারকে ঘিরে রবিবার এলাকায় গুঞ্জন শুরু হয়। এদিকে, সিউড়িতে অল ইন্ডিয়া জন অধিকার সুরক্ষা কমিটি সিউড়ি শহরে রামকৃষ্ণ সভাগৃহে একটি গন কনভেনশনে আদিবাসী মহিলাদের উপর অত্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে প্রস্তাবিত কয়লা খনি বন্ধ রাখার পক্ষে মতামত প্রকাশ করেন। প্রয়োজনে সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের মতো আন্দোলন শুরু হবে বলে জানান অল ইন্ডিয়া জন অধিকার সুরক্ষা কমিটির কনভেনার বিশ্বম্ভর মুড়া। 



বার্ষিক নির্বাচন

রবিবার পুরুলিয়া জার্নালিস্টস ক্লাবের বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হল। সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন অনির্বাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (দূরদর্শন)। সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয়ী হয়েছেন আজকাল পত্রিকার সাংবাদিক দীপেন গুপ্ত। সহ-সভাপতি পদে পুণরায় নির্বাচিত হলেন একদিন পত্রিকার সাংবাদিক আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। সহ-সম্পাদক পদে জয়ী হয়েছেন বুদ্ধদেব পাত্র (ওঙ্কার টিভি) এবং কোষাধ্যক্ষ পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন আমার পুরুলিয়ার সাংবাদিক অরিন্দম গিরি। এদিন ভোট গণনার শেষে দেখা যায়, সহ সম্পাদক পদে বুদ্ধদেব পাত্র ৩৭ ও শেখ হানিফ ১৮, সম্পাদক পদে দীপেন গুপ্ত ৩২ ও বর্তমান পত্রিকার শৌভিক মুখার্জি ২১, সহ সভাপতি পদে আশিস ব্যানার্জি ৩১ ও রাজকুমার মাহাত ২৩ এবং সভাপতি পদে অনির্বান বন্দ্যোপাধ্যায় ৩৪ ও চন্দন মাজী ২১ ভোট পেয়েছেন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কোষাধ্যক্ষ পদে জয়ী হয়েছেন অরিন্দম গিরি। এদিন জয়ীদের হাতে শংসাপত্র তুলে দেওয়া হয়। 



সচেতনতা শিবির

বীরভূমের নপাড়া লক্ষীনারায়ন খাদি ও গ্রামোন্নয়ন মহিলা সংস্থার উদ্যোগে রবিবার নারায়ণ ঘাঁটিতে মহিলাদের আইনি সচেতনতা শিবির, স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির এবং ক্রেতা সুরক্ষার গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সুপ্রকাশ চ্যাটার্জির স্মৃতির উদ্দেশ্যে এদিন এই স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়। প্রকাশিত হয় একটি স্মরণিকাও। পাশাপাশি, বাঁশ শিল্পের সঙ্গে যুক্ত হস্তশিল্পীদের প্রচার ও প্রসারের বিষয়ে আলোচনা করা হয়। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের পক্ষে শ্যামল গুপ্ত, বিডিও  দীপাঞ্জন জানা, আইনি পরিষেবা বিভাগের পক্ষে সান্তনা খাতুন, ক্রেতা সুরক্ষা বিভাগের পক্ষে  মোঃ রফিক ও মল্লারপুর নঈসুভা থেকে সাধন সিনহা। সংস্থার এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ঝুমা মুখার্জি জানান, সারদা মায়ের ১৬৯ তম জন্মতিথি উপলক্ষে এদিন দু:স্থদের শীতবস্ত্র ‌প্রদান এবং আহারের ব্যবস্থা করা হয়।


No comments:

Post a Comment