Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Sunday, 1 August 2021

আগামীদিনে বিজেপি করার কর্মী পাওয়া যাবে না : ‌বিস্ফোরক বিশ্বজিৎ দাস

 

Explosive-Biswajit-Das

সমকালীন প্রতিবেদন : ‌দলের সক্রিয় কর্মীর মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনার পরেও দলের নেতৃত্বের পক্ষ থেকে মৃত কর্মীর বাড়িতে শ্রদ্ধা জানাতে যাওয়া হয় নি। এমনই অভিযোগ তুলে দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করলেন বিজেপি বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস। দলের বিরুদ্ধেই একরাশ ক্ষোভ উগড়ে দিলেন। বললেন, '‌স্থানীয় নেতৃত্বের মানসিকতায় আগামী দিনে দলের ওপর ভরসা থাকবে না। দল করার কর্মী পাওয়া যাবে না।' বিশ্বজিৎ দাসের এদিনের মন্তব্যের পর আরও একবার বিজেপির অন্ত‌র্কলহ প্রকাশ্যে চলে এলো।

গত শুক্রবার বনগাঁর ট–বাজারের বাড়ির ভেতরেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠ হয়ে মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু হয় বনগাঁর বিজেপি কর্মী ঋষভ অধিকারী এবং তাঁর মা রীতা অধিকারীর। ঋষভ বিজেপির একজন সর্কীয় কর্মী ছিলেন। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বাগদার বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ দাসের ছায়াসঙ্গী হিসেবে সেখানে প্রচারের কাজ করেছিলেন। দলের এই একনিষ্ঠ কর্মীর আকস্মিক মৃত্যুতে স্বাভাবিকভাবেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পরেন বিশ্বজিত দাস।

শনিবার বিজেপির বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার পক্ষ থেকে বনগাঁয় একটি দলীয় বৈঠক ডাকা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির এই জেলার পর্যবেক্ষক তথ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত। সেই বৈঠকে অনুপস্থিত ছিলেন বিশ্বজিৎ দাস সহ দলের তিন বিধায়ক। এই প্রসঙ্গে রবিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন বিশ্বজিৎবাবু।

সেখানেই তিনি দলীয় নেতৃত্বের ওপর ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এদিন তিনি বলেন, 'দলের একজন সক্রিয় কর্মী একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মারা গেলেন, অথচ দলের কোনও নেতা তাঁর বাড়িতে গিয়ে বা শ্মশানে গিয়ে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মতো দায়িত্ব, কর্তব্য পালন করার কথা মনে করলেন না। যে নেতৃত্বের এমন মানসিকতা, তাঁদের সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করার মানসিকতা নেই। এরা নেতৃত্ব দেবার অযোগ্য। আগামী দিনে সাধারণ মানুষের এই দলের প্রতি আস্থা, ভরসা থাকবে না। আর এমন চলতে থাকলে আগামী দিনে এই দল করার কর্মীও খুঁজে পাওয়া যাবে না।' 

তিনি আরও অভিযোগ করেন, '‌দলীয় কর্মীর মৃত্যুর পরদিন বনগাঁয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এসে বৈঠক করলেন। অথচ স্থানীয় নেতৃত্ব তাঁকে নিয়ে একবার মৃত কর্মীর বাড়িতে যাওয়ায় সৌজন্য দেখালেন না। তাঁরা আনন্দ সহকারে বৈঠক করলেন। পরে দীঘাতে বেড়াতে চলে গেলেন।'

বিশ্বজিৎ দাসের এই মন্তব্যে ‌রাজনৈতিক মহলে ফের তোলপাড় শুরু হয়েছে। এব্যাপারে অবশ্য, বিজেপির সাংগঠনিক জেলার সভাপতি মনস্পতি দেব বলেন, 'ঋষভের মৃত্যু খুবই দু:‌খজনক। দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানাতে ঋষভের বাড়িতে মন্ডল সভাপতি এবং অন্যান্যরা গিয়েছিলেন। আমি অনেক পরে খবর পাই। বিশ্বজিৎ দাস এদিনের বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলেও জানিয়ে দেন। আর মন্ত্রীকে নিয়ে ঋষভের বাড়িতে যাওয়ার কথা বিশ্বজিৎ দা যদি আগে থেকে বলতেন যে, তাহলে সেব্যাপারে কেন্দ্রীয় বা রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে সে ব্যাপারে একবার চেষ্টা করতাম।'‌‌ ‌

যদিও মৃত বিজেপি কর্মী ঋষভ অধিকারীর পরিবারের দাবি, এতোবড় মর্মান্তিক ঘটনা ঘটার পরে এখনও পর্যন্ত বিজেপির বনগাঁর নেতৃত্বের কেউ একবারের জন্যও বাড়িতে এসে সমবেদনা জানিয়ে যান নি। এই ঘটনায় মর্মাহত ঋষভের পরিবার।

No comments:

Post a Comment