Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, 4 January 2022

দিনের টুকিটাকি : ‌৪ জানুয়ারী, ২০২২

পুলিশি অভিযান

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় পুরুলিয়া জেলায় মাস্ক পরা এবং করোনা বিধি মেনে চলার জন্য কড়া হল প্রশাসন। এব্যাপারে মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে ধরপাকড়। মঙ্গলবার পুরুলিয়া সদর থানার পক্ষ থেকে জেলার মেইন রোড, পোস্ট অফিস মোড়, দেবেন মাহাত সদর হাসপাতাল মোড় সহ বিভিন্ন এলাকায় নজরদারি চালায় পুলিশ। মাস্ক না পরে বাইরে বেরোনোর অভিযোগে ৩৩ জনকে আটক করা হয়।তাদেরকে পুরুলিয়া ইনডোর স্টেডিয়ামে নিয়ে গিয়ে রাখা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে করোনা বিধি মেনে চলার জন্য প্রচার চালানোর পাশাপাশি ধরপাকড়ও চালানো হবে। প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্তা গ্রহন করা হবে। জেলার সদর থানার পাশাপাশি বাকি থানা এলাকাতেও একই ধরনের অভিযান চালানো হচ্ছে। 



মাদক কারবারী

পুরুলিয়ার দুবরাজপুর থানার পছিয়াড়া জঙ্গল থেকে আড়াইশো গ্রাম হেরোইন সহ তিন দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। সূত্রের খবর, সোমবার রাতে দুবরাজপুর ব্লকের পছিয়াড়া জঙ্গলে মোটর সাইকেলে মাদক পাচার করা হচ্ছে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দুবরাজপুর থানার ওসি আফরোজ হোসেনের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী জঙ্গল ঘিরে ফেলে। তারপর তল্লাশি চালিয়ে একটি মোটরসাইকেল সহ ২৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে। হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয় ৩ মাদক কারবারীকে। ধৃতদের মধ্যে রয়েছে পলাশডাঙার ভীম বাউরী, খোঁজমহম্মদপুরের সেখ বাবুল এবং সেখ আলিমুদ্দিন। মঙ্গলবার তাঁদের তিনজনকে সিউড়ি আদালতে পাঠানো হলে বিচারক শেখ আলিমুদ্দিনকে জেল হেফাজত এবং শেখ বাবুল ও ভীম বাউরীকে ৭ দিনের জন্য পুলিশ হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 



সিবিআই নোটিশ

উত্তর ২৪ পরগনার জগদ্দলে আকাশ যাদব খুনের ঘটনায় পাঁচ অভিযুক্তকে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নোটিশ ঝোলালো সিবিআই। বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার দিন প্রকাশ্যে বাড়ির কাছেই খুন হন জগদ্দলের পুরানীতলাব এলাকার বাসিন্দা আকাশ যাদব। সিবিআই সেই ঘটনার তদন্তভার নেওয়ার পর একাধিকবার মৃতের বাড়িতে এবং পাড়ায় এসে জিজ্ঞাসাবাদ করে। যদিও ঘটনার পর থেকে পলাতক সাগর দাস, পঙ্কজ দাস ওরফে সাহিল, গুড্ডু যাদব এবং সুমিত যাদব নামে পাঁচ অভিযুক্ত। ২১ ডিসেম্বর ব্যারাকপুর আদালতে শেষ হাজির দেওয়ার দিনক্ষণ ছিল তাদের। কিন্তু অভিযুক্তরা সেদিন আদালতে হাজির না হওয়ায়। মঙ্গলবার দুপুরে সিবিআইয়ের তিন সদস্যের একটি দল প্রথমে জগদ্দল থানায় আসে। তারপর সেখান থেকে তাঁরা অভিযুক্তদের বাড়িতে যান। কাউকেই বাড়িতে না পেয়ে তাদের পাঁচজনের বাড়ির দেওয়ালে নোটিশ লাগিয়ে দেন। নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, ২১ জানুয়ারি ওই পাঁচজনকে ব্যারাকপুর আদালতে হাজিরা দিতে হবে। 




No comments:

Post a Comment