Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, 12 October 2021

দিনের টুকিটাকি : ১২ অক্টোবর, ২০২১

৫০ বছরে পা

বনগাঁর বক্সীপল্লীর ইয়ং বেঙ্গল স্পোর্টিং ক্লাব ৫০ বছরে পা দিলো। ১৯৭২ সালে এই ক্লাব প্রতিষ্ঠিত হয়। তারপর থেকে এই ক্লাব নিয়মিত দুর্গা পুজোর আয়োজন করে আসছে। ২০২০ সালে তারা ইশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জীবনের উপরে থিম করে পুজোর আয়োজন করেছিল। এবছর গুজরাটের ভোলানাথের মন্দিরের অনুকরণে পুজো মণ্ডপ তৈরি করা হয়েছে। ক্লাব সম্পাদক শ্যামল সাহা জানান পুজোর পাশাপাশি তারা রক্তদান, বস্ত্রদান, নরনারায়ন সেবার আয়োজন করে থাকেন। এবছরও সেই আয়োজন করা হয়েছে।



শ্রমিকদের বোনাস

আইএনটিটিইউসির বনগাঁ সাংগঠনিক জেলা পরিচালিত শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে  শ্রমিকদের হাতে পুজোর বোনাস তুলে দেওয়া হল। সংগঠনের জেলা সভাপতি নারায়ন ঘোষ জানান, বনগাঁ স্টেশন ই রিক্সা ইউনিয়নের ২৫০ জন টোটো চালককে মাথাপিছু ৫০০ টাকা, ডিএন ৪৪ বাস রুটের শ্রমিকদের ১১৫০ টাকা, ৯৬সি রুটের বাস শ্রমিকদের ৯৫০ টাকা, বনগাঁ–চাঁদপাড়া রুটের ১৫০ জন অটো চালককে এবং বনগাঁ–কালীতলা রুটের ৫০ জন অটো চালককে ৭০০ টাকা করে পুজোর বোনাস তুলে দেওয়া হয়। সংগঠনের পক্ষ থেকে পুজোর সময় এমন বোনাস পেয়ে খুশি শ্রমিকেরা।   




বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে

পুজো মন্ডপ আলোকিত করতে এসে মৃত্যু হল ইলেকট্রিক ব্যবসায়ীর। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার গাইঘাটা থানার ঘোজা বাজার এলাকায় এক পুজো মণ্ডপে ইলেকট্রিকের কাজ করতে আসেন গাইঘাটা থানার ন্যাড়া গাজীপুরের বাসিন্দা বিশ্বজিৎ রায়। পেশায় ডেকরেটর ও লাইট, মাইকের ব্যবসায়ী বিশ্বজিৎ সপ্তমীর সকালে ওই পুজো মন্ডপে কাজ করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। জানা গেছে, একটি ইলেকট্রিক পোস্টে বাধা মাইকে কিছু অসুবিধার জন্য নিজেই পোষ্টে ওঠেন। উপরে ওঠার পর ইলেকট্রিক শক খেয়ে বিশ্বজিৎবাবু ছিটকে পড়ে যান নিচে। স্থানীয়রা তড়িঘড়ি হাবরা হাসপাতালে নিয়ে যান। ততক্ষণে মৃত্যু হয় তাঁর। 




পুজোয় সমাজসেবা

পুজোর আড়ম্বর না বাড়িয়ে একগুচ্ছ সমাজসেবামূলক কর্মসূচির উদ্যোগ নিল বারাসত নবপল্লী কাঁঠালতলা দুর্গাপুজো কমিটি। এবার অষ্টম বর্ষে তাঁরা বারাসত স্টেশন এলাকায় থাকা পথ শিশু, ভবঘুড়েদের নতুন বস্ত্র তুলে দিলেন। শতাধিক পথ শিশুদের জামা কাপড়, দুঃস্থ মহিলাদের নতুন শাড়ি ও অসহায় মানুষের হাতে বিনামূল্যে ১২ রকমের খাদ্যদ্রব্যও তুলে দেওয়া হয়। পাড়ারই এক অসহায় পরিবারকে আর্থিক সাহায্যও করা হয়। পুজো কমিটির সভাপতি তাপস দাস ও সম্পাদক অর্ণব চক্রবর্তী বলেন, 'পুজোর খরচ বাঁচিয়ে মূলত মানব সেবার  কাজই করে নবপল্লী কাঁঠালতলা দুর্গাপুজো কমিটি। টানা আট বছর এইভাবেই কাজ করে চলেছি আমরা।' পুজো কমিটির পক্ষ থেকে কোভিড বিধি মেনে মণ্ডপে প্রবেশের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মণ্ডপে মাস্ক ও স্যানিটাইজার রাখারও ব্যবস্থা করেছে।‌








No comments:

Post a Comment