Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Saturday, 18 September 2021

দিনের টুকিটাকি : ‌১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

 ‌মহিলা চিকিৎসকের দেহ উদ্ধার

পুরুলিয়ার বরাবাজারে মহিলা চিকিৎসক সুচিত্রা সিংয়ের (৪০) পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তাঁর স্বামীকেই সন্দেহ করছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, স্ত্রীকে খুন করে মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে তাঁর স্বামী। জানা গেছে, বরাবাজার ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মেডিক্যাল অফিসার ছিলেন সুচিত্রা সিং। গত কয়েকদিন ধরে হাসপাতালে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন না ওই চিকিৎসক। তাঁর আবাসনের দরজাও তালা বন্ধ ছিল। প্রতিবেশীরা ভেবেছিলেন, তিনি ছুটিতে গেছেন। শুক্রবার দুপুরের পর থেকে আবাসনের চারপাশে দুর্গন্ধ বের হতে থাকে।  পরে দুর্গন্ধ আরও বাড়তে থাকলে বরাবাজার থানায় খবর দেওয়া হয়। পুলিশ কোয়ার্টারের তালা ভেঙে ঘরের ভিতর থেকে প্লাস্টিক মোড়া মৃতদেহ উদ্ধার করে। পরে তা ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়। পুলিশ জানিয়েছে, কয়েক বছর ধরে ওই চিকিৎসক তাঁর চার বছরের মেয়েকে নিয়ে ওই আবাসনেই থাকতেন। স্বামীর সঙ্গে অশান্তী চলছিল। সেই কারণেই এই খুন কি না, পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে। চিকিৎসকের স্বামীর সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ।


বিদ্রোহীদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা

সোস্যাল মিডিয়ায় দলকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা করলে, দলের সেই নেতা বা কর্মীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। পটরয়োজনে দল থেকে বহিষ্কার পর্যন্ত করা হতে পারে বলে হুসিয়ারী দিলেন জেলা তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। শনিবার হাবড়ায় দলের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জ্যোতিপ্রিয়। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, হাবড়ায় প্রচুর উন্নয়ন হয়েছে। এলাকার প্রতিটি পরিবার লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। ভ্যাকসিন দেওয়ার ক্ষেত্রে রাজ্যে উল্লেখযোগ্য স্থানে রয়েছে হাবড়া পুরসভা। আর এভাবেই হাবড়াকে গুছিয়ে নেওয়া হয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের পর হাবড়ায় বিরোধীদের কোনও অস্তিত্ব নেই। বিজেপি নেতারা সব পাততাড়ি গুটিয়ে চলে গেছেন। তাঁর দাবি, শুধু হাবড়া নয়, জেলার প্রতিটি পুরসভাতেই ভালো কাজ হচ্ছে। যার কারণে আগামী পুরসভা নির্বাচনে জেলার সব পুরসভাই তৃণমূলের দখলে থাকবে। তাই আমরা বিচলিত নই।



গেঞ্জি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড

উত্তর ২৪ পরগনার হাবরা থানার রুদ্রপুর এলাকার একটি গেঞ্জি কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল। প্রতিবেশী এক মহিলা হঠাৎই দেখতে পান, গেঞ্জি কারখানার তিন তলার উপরে আগুন জ্বলছে। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেও‌য়া হয় গেঞ্জি কারখানার মালিককে। তড়িঘড়ি তাঁরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু আগুন নিয়ন্ত্রণে না আসায় খবর দেওয়া হয় হাবড়া থানায় এবং দমকলে। কিন্তু দমকলের আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা না করে স্থানীয় লোকজন নিজেরাই আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে দেন। প্রায় আধাঘণ্টা ধরে চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তারপরে ঘটনাস্থলে আসে দমকলের একটি ইঞ্জিন এবং হাবড়া থানারা পুলিশ। জানা গেছে, বর্ষার কারণে কারখানার ছাদে উপরে উনুনে রান্না করছিলেন ওই বাড়ির লোকজন। দুপুরে রান্না করে নিচের ঘরে চলে যান। সম্ভবত উনুনের আগুন সম্পূর্ণ না নিভে যাওয়ায় তার থেকেই এই আগুন ছড়িয়ে পরে। 


রাস্তা মেরামতির দাবিতে অবরোধ

বেহাল রাস্তা মেরামতির দাবিতে পথ অবরোধ করলেন বীরভূমের মোহাম্মদ বাজার ব্লকের কাপাসডাঙার বাসিন্দারা। পাথর শিল্পাঞ্চল হিসেবেই পরিচিত কাপাসডাঙা। সেই কারণে পাথর সংগ্রহ করতে সোতসাল থেকে পাচামি যাওয়ার রাস্তায় ভারী ভারী পাথর বোঝাই লরি যাতায়াত করায় রাস্তা বেহাল হয়ে পড়েছে। তার ফল ভোগ করতে হচ্ছে স্থানীয় মানুষদের। বেহাল রাস্তার কারণে দূর্ঘটনা ঘটছে। বার বার প্রশাসনকে জানিয়েও কাজ না হওয়ায় এবারে পথে নামলেন কাপাসডাঙা সহ আশপাশের গ্রামের কয়েকশো মানুষ। শনিবার রাস্তার উপর মোটরসাইকেল, ট্রলি, সাইকেল, টোটো দাঁড় করিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ দেখান পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে অবরোধ ওঠে।




No comments:

Post a Comment