Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, 24 August 2021

শিশুদের অপহরণের ছক তালিবানের, প্রাণ বাঁচাতে পাহাড়ে আশ্রয় মহিলাদের

 

Taliban-abduction-of-children

সমকালীন প্রতিবেদন : কাবুল সহ গোটা আফগানিস্তান তালিবানের দখলে চলে এলেও এখনও অধরা পঞ্জশির। সেখানে তালিবানদের বিরুদ্ধে লড়াই ক্রমশ শক্তিশালী হচ্ছে। এদিকে, পঞ্জশির দখলে এবার শিশুদের অপহরণের ছক কষেছে তালিবান। পাল্টা লড়াইয়ে মরিয়া নর্দার্ন অ্যালায়েন্স। চলছে গুলির লড়াই। বিস্ফোরণ ঘটিয়ে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে তালিবানের কনভয়। এতে অন্তত তিনশো তালিবান জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। সংঘর্ষে বান প্রদেশে নিহত হয়েছে তালিবানের তিন কমান্ডার। পিছু হঠার কোনও প্রশ্নই নেই বলে জানিয়ে দিয়েছেন মাসুদ। 

তালিবানদের হাত থেকে পঞ্জশির রক্ষায় নিয়োজিত যোদ্ধাদের মনোবল বাড়াতে ভলিবল খেলে উৎসাহিত করছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট সালে।আমরুল্লাহ সালে টুইট করে লিখেছেন, আন্দারব উপত্যকায় খাবার ও জ্বালানি আসতে দিচ্ছে না তালিবানরা। এখানকার মানুষজনের অবস্থা খুবই খারাপ। মহিলা ও শিশুরা পাহাড়ে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন। গত দুদিন ধরে তালিবানরা বৃদ্ধ ও শিশুদের অপহরণ করছে। পঞ্জশির দখলে ঢাল হিসেবে তাঁদের ব্যবহার করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, পঞ্জশির উপত্যকার কাছে পৌঁছে গিয়েছে তালিবানরা। উত্তর আফগানিস্তানের তিনটি জেলা বানো, দেহ সালেহ ও পুল-ই-হেসার দখল নিয়েছে তারা। এখন তালিব জঙ্গিরা পঞ্জশির উপত্যকার বাদাখশান, তখর ও আন্দারাবের কাছে অবস্থান করছে। কিন্তু কাবুলের পতনের এক সপ্তাহ পরও ছোট্ট প্রদেশ পঞ্জশির থেকে প্রতিরোধ জারি রেখেছেন গণতন্ত্রপ্রেমী আফগানরা।

এদিকে, কাবুল বিমানবন্দরে ফের আগুন। দেশ ছাড়ার জন্য মরিয়া আফগানদের ভিড় বিমানবন্দর চত্বরে। পরিস্থিতি সামলাতে মার্কিন সেনাকে শূন্যে গুলি চালাতে হচ্ছে। সেই গুলিতেই এক আফগান নিরাপত্তা কর্মীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ। জখম হয়েছেন তিনজন। গত ২৪ ঘণ্টায় কাবুল বিমানবন্দর থেকে প্রায় ১৬ হাজার জনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পেন্টাগন। আজ কাবুল থেকে তাজিকিস্তান হয়ে ভারতে আসছেন আরও ৭৮ জন। তাঁদের মধ্যে ২৫ জন ভারতীয়। বাকিরা আফগান শরণার্থী। টুইট করে এমনটাই জানিয়েছেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি। 

আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি ভিত্তিতে ভার্চুয়াল জি-৭ বৈঠক ডেকেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আজ সেই বৈঠক হওয়ার কথা। আফগানিস্তান থেকে বিদেশি নাগরিকদের বের করে আনার জন্যই জি-৭ গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির নেতারা ৩১ আগস্টের পরও যাতে আফগানিস্তানে মার্কিন সেনাবাহিনী থাকে, সেব্যাপারে বলতে পারেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

তালিবরা আফগানিস্তান দখল করে নেওয়ার পর থেকেই উৎসাহিত বিভিন্ন বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে তালিবানের সমর্থনে লস্কর-ই-তৈবা ও জইশ জঙ্গিরা উল্লাস করতে শুরু করেছে। ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে না নেওয়া হলে আমেরিকাকে তার ফল ভুগতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে তালিবান।

এদিকে, দেশ ছাড়ার পর মারাত্মক আতঙ্কের মধ্যে দিয়ে যে দুই রাত কেটেছে, ইনস্টাগ্রামে তা ভক্তদের জানিয়েছেন আফগানিস্তানের জনপ্রিয় পপ তারকা আরিয়ানা সইদ। বলেছেন, 'আমি ভাল আছি। বেঁচে আছি। দোহায় পৌঁছিয়েছি। এখন ইস্তানবুলে ফেরার অপেক্ষা।'

আরিয়ানার স্বামী আফগান সঙ্গীত প্রযোজক হাসিব সইদ তুরস্কে থাকেন। আরিয়ানা জানিয়েছেন, 'অনেক কথা বলার আছে। বাড়ি ফিরে ধাতস্থ হওয়ার পর সব বলব। আগে আতঙ্কের পরিবেশ কিছুটা কাটিয়ে উঠি।' তবে আরিয়ানা দেশ ছাড়তে পারলেও পারেননি হাজারা জেলার গভর্নর সালিমা মাজারি। তালিবরা তাঁকে ধরেছে। তাঁর কোনও খোঁজ নেই। অনেকে আশঙ্কা করছেন, তাঁকে হয়তো মেরে ফেলা হয়েছে।



No comments:

Post a Comment