Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Monday, 2 August 2021

দিনের টুকিটাকি : ‌২ আগস্ট, ২০২১

 মদের আসরের প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত দম্পতি

বাড়ির সামনে মদ খেয়ে গালিগালাজ করার প্রতিবাদ করায় মারধরের ঘটনা ঘটল একটি পরিবারের সদস্যদের উপর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের চিকিৎসা কেন্দ্রে পাঠানো হয়। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার হাবরা থানার অন্তর্গত দারিয়াসুরী এলাকার ঘটনা। অভিযোগ, কৃষ্ণ ঘোষ নামে এক ব্যক্তি বাইরে থেকে লোক নিয়ে এসে দীর্ঘদিন ধরে সিদ্দিক মন্ডলের বাড়ির সামনে মদ ও গাজার আসর বসাতো। আজ বিকালে এই আসর যাতে না বসে, তার জন্য প্রতিবাদ করেন সিদ্দিক মণ্ডল এবং তাঁর স্ত্রী। এই ঘটনার জেরে অভিযুক্ত যুবক কৃষ্ণ ঘোষ বাঁশ, লাঠি নিয়ে চড়াও হয় সিদ্দিক মণ্ডল ও তাঁর স্ত্রীর উপর। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁরা কোনরকমে পালিয়ে হাবরা থানার দ্বারস্থ হন। পরে তাঁদেরকে হাবরা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁদেরকে বারাসত জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় হাবরা থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছে সিদ্দিক মণ্ডলের পরিবারের লোকজন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে হাবরা থানার পুলিশ।


নাবালিকাকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার বৃদ্ধ

একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনায় সন্তানসম্ভবা হয়ে পরে ১৪ বছরের নাবালিকা। অত্যাচারিতা ওই নাবালিকা বনগাঁ হাসপাতালে সন্তান প্রসবও করল। এই ঘটনায় অভিযুক্ত এক বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগর থানার নওদা গ্রামের এই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৬৭ বছর বয়সী অভিযুক্ত ওই বৃদ্ধের নাম সাইফুল্লা মুন্সি মন্ডল। অভিযোগ, নাতনী সম্পর্কীয় প্রতিবেশী ১৪ বছরের এক নাবালিকাকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে ওই বৃদ্ধ তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এই ঘটনা কাউকে বলে দিলে জীবনে মেরে ফেলারও হুমকি দেও‌য়া হয় বলে অভিযোগ। এক সময় ওই নাবালিকা সন্তানসম্ভবা হয়ে পরে। নাবালিকার মা প্রথমে মেয়েকে দেখে ভেবেছিলেন, মেয়ের পেটে কোনও সমস্যা হয়েছে। কিন্তু রবিবার সন্ধেয় বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করলে পুত্র সন্তান প্রসব করে ওই নাবালিকা। ঘটনা জানাজানি হতেই সামনে আসে প্রতিবেশী বৃদ্ধ সাইফুল্লার নাম। রবিবার রাতে নাবালিকার মা গোপালনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে রাতেই সাইফুল্লাকে গ্রেপ্তার করে গোপালনগর থানার পুলিশ। সাইফুল্লার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।  


No comments:

Post a Comment