Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, 13 July 2021

রোগমুক্তিতে শীঘ্রই বাজারে আসছে পাট পাতার চা


রোগমুক্তিতে শীঘ্রই বাজারে আসছে পাট পাতার চা

সমকালীন প্রতিবেদন : রাজ্যের কৃষি বিজ্ঞানীদের বড়সড় সাফল্য। টানা তিন বছর ধরে নিরন্তর গবেষণার পর তাঁরা তৈরি করে ফেলেছেন জুট টি। অর্থাৎ পাট পাতার চা। শুনতে খানিকটা অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। কলকাতায় অবস্থিত কেন্দ্রীয় সরকারের গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ন্যাচারাল ফাইবার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির বিজ্ঞানীদের হাত ধরে শীঘ্রই বাজারে আসতে চলেছে নয়া এই চা।

স্বাদে দার্জিলিং বা অসমের চা'কে টেক্কা দিতে পারবে কি না সেটা পরের প্রশ্ন। কিন্তু গুণের নিরিখে সে লেটার মার্কস নিয়েই পাশ করবে, বলছেন বিজ্ঞানীরা। আর পাট পাতার চায়ের গুণাগুন জানলে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন। কারণ, মারণ ক্যানসারকেও রুখে দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে এই চায়ের, এমনটাই দাবি গবেষকদের। পাট পাতা থেকে চা তৈরির গবেষণায় মুখ্য ভূমিকা পালন করেছেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ন্যাচারাল ফাইবার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির বিজ্ঞানী ড. দেবপ্রসাদ রায়। তিনি জানিয়েছেন, ন্যাশনাল জুট বোর্ড থেকে এই গবেষণা চালানোর জন্য অর্থ পাওয়া গিয়েছিল। তিন বছর ধরে চলা গবেষণায় সাফল্য এসেছে। পাট পাতা থেকে তৈরি চায়ের পেটেন্ট পেতে শীঘ্রই তাঁরা সংশ্লিষ্ট জায়গায় গবেষণাপত্র জমা দেবেন। পেটেন্ট মিললেই ওই চা বাজারে আনার কাজ শুরু হয়ে যাবে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, পাট পাতা থেকে তৈরি চা নিয়মিত পান করলে কমবে সুগার, কোলেস্টেরল, উচ্চ রক্তচাপ। মিনারেল, ভিটামিন, প্রোটিন, ফসফরাস, ফ্যাট ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর হবে ওই চা। একইসঙ্গে পাট পাতার চায়ে পাওয়া যাবে পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, আয়রন, সোডিয়াম, ফাইবার। অর্থাৎ, আক্ষরিক অর্থেই এই চা হয়ে উঠবে আদর্শ হার্বাল টি, যা শরীরকে রোগমুক্তি ঘটাতে সাহায্য করবে। রাইবোফ্লাবিন, নিয়াসিন এমনকী ফোলেটের পাশাপাশি পাট পাতায় থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল কমাতে কাজ করবে বলে দাবি গবেষকদের। ঝুঁকি কমবে হার্টের অসুখের। পাট পাতায় রয়েছে ভিটামিন এ, সি এবং ই। ফলে ত্বক থাকবে উজ্জ্বল। বয়সের ছাপ পড়বে না। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় বাড়বে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

পাট পাতা থেকে চা তৈরি করে বাংলাদেশ অবশ্য ইতিমধ্যেই হইচই ফেলে দিয়েছে। নিজেদের দেশে তৈরি ওই চায়ের তারিফ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পদ্মাপাড়ের দেশের কাছ থেকে পাট পাতার চা কিনছে জার্মানি। এ রাজ্যের বিজ্ঞানীদের অবশ্য বক্তব্য, বাংলাদেশ কী পদ্ধতিতে পাট পাতা থেকে চা তৈরি করেছে, তা জানা নেই তাঁদের। তবে তাঁদের তৈরি চা হবে সম্পূর্ণ অন্য স্বাদের, বিষক্রিয়ামুক্ত।


No comments:

Post a Comment