Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Monday, 18 October 2021

TRIPS : দিনের টুকিটাকি : ‌১৮ অক্টোবর, ২০২১

মহিলার দেহ উদ্ধার

মধ্য বয়সী মহিলার দেহ উদ্ধার হল বাওড়ের জল থেকে। বনগাঁ থানার মনিগ্রাম পানচিতা বাওড় থেকে উদ্ধার হওয়া ওই মহিলার পরিচয় জানা যায় নি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সন্ধে নাগাদ বাওড়ে মাছ ধরতে যান স্থানীয় তিন মৎসজীবী। মাছ ধরার জাল পাততে গিয়ে তাঁদের নজরে আসে এক জনের দেহ জলে ভাসছে। খবর দেওয়া হয় স্থানীয়দের এবং বনগাঁ থানায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় এক মধ্যবয়সী মহিলার দেহ উদ্ধার করে। ময়না তদন্তের জন্য দেহ বনগাঁ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। ওই মহিলার পরিচয়, কিভাবে এই বাওড়ে তার মৃতদেহ এলো, তার সবটাই তদন্ত করে দেখছে বনগাঁ থানার পুলিশ।



প্রতিবাদ মিছিল

বাংলাদেশে দুর্গা মন্দিরে হামলা ও হিন্দুদের উপর আক্রমণের প্রতিবাদে প্রবল বর্ষণকে উপেক্ষা করেই পথে নামলো পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। এদিন পুরুলিয়া শহরের ট্যাক্সিস্ট্যান্ড মোড়ে জমায়েত হয়ে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন জেলা বিজেপির নেতা, কর্মী, সমর্থকেরা। জেলা বিজেপি সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর নেতৃত্বে এদিনের কর্মসূচিতে অংশ নেন বিজেপি বিধায়ক সুদীপ মুখার্জি ও নরহরি মাহাতো সহ দলের সর্বস্তরের নেতা ও কর্মীরা। রবিবার রাত থেকে শুরু হওয়া টানা বৃষ্টি উপেক্ষা করেই এই প্রতিবাদ মিছিলে সোমবার শহরে ট্যাক্সি স্ট্যান্ড এ প্রচুর মানুষের জমায়েত হয়। ঘটনায় দোষীদের গ্রেপ্তারের পাশাপাশি তীব্র নিন্দা জানানো হয় এবং সর্বস্তরের বাঙালি মানুষদের প্রতিবাদে সামিল হওয়ার আহ্বান জানানো হয়। পুরুলিয়া শহরের পাশাপাশি ঝালদা ও রঘুনাথপুর শহরেও প্রতিবাদ আন্দোলনে নামেন বিজেপি নেতা ও কর্মীরা।  


ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

এক মহিলার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ালো পুরুলিয়ার ঝালদা থানার নিমডি গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার ঝালদা থানার পুস্তি অঞ্চলের নিমডি গ্রামে নিজের বাড়িতেই সকালে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায় পরিবারের সদস্য গোপেশ্বরী লোহার (২২) কে। দূর্গাপুজোতে তিনি বাপের বাড়িতে এসেছিলেন। কিন্তু কি কারণে এই ঘটনা তা জানাতে পারেন নি গ্রামবাসীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ঝালদা থানার পুলিশ। দুপুর ১২ টা নাগাদ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পুরুলিয়ার দেবেন মাহাতো মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। মৃত্যুর কারণ জানতে তদন্ত শুরু করেছে ঝালদা থানার পুলিশ। 



No comments:

Post a Comment