Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Saturday, 23 October 2021

PUBLIC MEETING : তৃণমূল প্রার্থী‌র সমর্থনে খড়দায় জনসভা অভিষেক ব্যানার্জীর

 

Abhishek-Banerjee-public-meeting-in-Kharda

সৌদীপ ভট্টাচার্য : '২০২৪ সালে দিল্লিতে বিজেপি সরকার ক্ষমতাচ্যুত হবে।'‌ খড়দা (KHARDA) বিধানসভা ‌কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেব চ্যাটার্জির সমর্থনে শনিবার জনসভায় এই আশাপ্রকাশ করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জী (AVISHEK BANERJEE)। 

এদিন অভিষেক ব্যানার্জী জানান, 'গত বিধানসভা নির্বাচনে একটি মাত্র রাজনৈতিক দলকে সুবিধা দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশন আট দফায় নির্বাচন করেছিল। আর তার জন্যই তাদের দলের প্রার্থী কাজল সিনহা খড়দা কেন্দ্রে জয়লাভ করলেও সেই জয় তাঁর আর দেখা হল না। মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়েই কাজল সিনহার মতো নেতা করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন।' অভিষেক ব্যানার্জী জানান, 'তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা ব্যানার্জীই (MAMATA BANERJEE) পারেন বিজেপিকে রুখে দিতে।'  


তিনি বলেন, 'গোয়া ও ত্রিপুরাতে ইতিমধ্যেই তৃনমুল কংগ্রেস পৌঁছে গেছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস আরও ১০ টি রাজ্যে ঢুকবে।' তিনি বলেন, 'বিজেপি বলেছিল, তারা ক্ষমতায় আসলে, আচ্ছে দিন আসবে। কালো টাকা উদ্ধার হবে। কিন্তু সেই দিন আজ কোথায়। পেট্রোলের দাম ১০৮ টাকা। ডিজেলের দাম সেঞ্চুরিতে পৌঁছে গেছে। পাঁচশো টাকার রান্নার গ্যাস এখন কিনতে হচ্ছে ‌১ হাজার টাকায়। দেশের জিডিপি মাইনাসে পৌঁছেছে। জিএসটি লাগু হওয়ায় ছোট ব্যবসায়ীরা মার খাচ্ছে। এই দিন মানুষ আর চান না।'‌ 


অভিষেক জানান, 'তৃণমূল ছাড়া বিজেপির বিরুদ্ধে আর কোনও দল মুখ খুলেছে না। মুখ খুললে ইডি, সিবিআই দিয়ে তাদের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা চলছে। আমাকেও দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে ৯ ঘন্টা জেরা করা হয়েছিল। যদিও এতে তৃণমূল কংগ্রেস ভয় পায় না।' অভিষেক ‌বলেন, 'খড়দার বিজেপি প্রার্থী এখন কাজল সিনহার ফটো নিয়ে ঘুরছেন। প্রধানমন্ত্রী সহ বিজেপির কোন‌ও নেতার উপর আস্থা রাখতে পারছেন না বিজেপি প্রার্থী। শোভনদেব চ্যাটার্জি (SOVONDEB CHATTERJEE) মমতা ব্যানার্জীর আশীর্বাদধন্য। তিনি আগামী দিনে খড়দার মানুষের সুখে–দুঃখে থাকবেন।' 


এদিনের জনসভায় প্রার্থী শোভনদেব চ্যাটার্জি,‌ মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, সাংসদ সৌগত রায়, বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, নারায়ণ গোস্বামী সহ তৃণমূল নেতারা উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, এই কেন্দ্রে সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী ছিলেন কাজল সিনহা। তাঁর বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী করেছেন প্রয়াত মনীশ শুক্লার বাবা চন্দ্রমনি শুক্লাকে। যদিও ২ মে নিবার্চনের ফল ঘোষণা হতে দেখা যায়, এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহা জয়লাভ করেছেন। 

ফল প্রকাশের আগেই অবশ্য কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা যান কাজল সিনহা। পরবর্তীতে ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে শোভনদেব চ্যাটার্জি পদত্যাগ করায় তৃণমূল তাঁকে খড়দার প্রার্থী করেছে। শোভনদেব চাটার্জীকে প্রার্থী হিসেবে পেয়ে খড়দার তৃণমূল কর্মীরা জয়ের বিষয়ে একপ্রকার নিশ্চিত আছেন বলেই জানিয়েছেন। ৩০ অক্টোবর এই কেন্দ্রে উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।



No comments:

Post a Comment