Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Friday, 26 November 2021

‌কবর থেকে বধূর মৃতদেহ তুলে ময়না তদন্ত

Autopsy-of-the-bride-body

সমকালীন প্রতিবেদন : ডেথ সার্টিফিকেট ছাড়াও বধূর মৃতদেহ দাহ না করে কবর দিয়েছিল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। আর তাতেই সন্দেহ হওয়ায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে কবর থেকে বধূর মৃতদেহ তুলে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হল। উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর থানা এলাকার এই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মৃত বধূর স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অশোকনগর থানার নটনি পাড়া এলাকার এক আদিবাসী পরিবারের গৃহবধূ মনা রায় ওরাও (‌৪০)‌ গত মঙ্গলবার দুপুরে হঠাৎ করেই মারা যান। তাঁর বড় মেয়ে পুজা ওড়াও জানায়, ওই দিন তার বাবা বিশ্বজিৎ ওরাও কাজে গিয়েছিল। মা অসুস্থা থাকায় পুজা রান্না করে মাকে খাবার দেয়। খাবার খেয়ে ছোট মেয়েকে খাওয়ান মনা রায় ওরাও। এর কিছুক্ষণ পর পুজা দেখে, তার মা মাটিতে লুটিয়ে পরে রয়েছেন। পুজা ভয় পেয়ে প্রতিবেশীদের খবর দেয়। ফোন করে বিষয়টি বাবাকেও জানায়।

এরপর সবাই এসে জানায় যে, মনা রায় ওরাও মারা গেছে। যদিও তাঁকে হালপাতালে বা কোনও চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গিয়ে মৃত্যুর সার্টিফিকেট আনা হয় নি। এই অবস্থায় তাঁকে শ্মশানে না নিয়ে গিয়ে বাড়ির পাশে কবর দিয়ে দেওয়া হয়। মেয়ে পুজা ওরাও জানায়, তার মায়ের ভোটার কার্ড বা অন্য কোনও নথি নেই। তাই তার মাকে শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয় নি। আর এখানেই সন্দেহ দানা বাধে।


এদিকে, মনা রায় ওরাও এর বাপের বাড়ির আত্মীয়দের সন্দেহ হয়, কোনও চিকিৎসকের কাছে না গিয়ে নিজেরা সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন মনা রায় ওরাও কে কবর দিয়ে দেওয়া হল। তাহলে কি তাঁর মৃত্যুর পেছনে অন্য কারণ আছে ?‌ এই সন্দেহেরবসে তাঁপ বাপের বাড়ির পক্ষ থেকে অশোকনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অনুযায়ী শুক্রবার ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে মাটি খুঁড়ে মনা রায় ওরাও এর মৃতদেহ তুলে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে।






No comments:

Post a Comment