Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Friday, 3 September 2021

রোহিঙ্গারা শরনার্থী কেন ? (‌‌পর্ব-২)‌

 

Why-Rohingya-refugees-Episode-2

রোহিঙ্গারা শরনার্থী কেন ? (‌‌পর্ব-২)‌

অজয় মজুমদার

কেন এই রাষ্ট্রীয় দমন–পীড়ন ? রোহিঙ্গাদের দোষ হল আরাকান ও রাখাইন নিজেদের স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে দাবি করা ৷ এইরকম দাবি বিভিন্ন দেশে হামেশাই করা হয়ে থাকে। যেমন শ্রীলংকা তামিল রাজ্যের, ভারতে দার্জিলিং-এ গোর্খাল্যান্ডের দাবি ইত্যাদি। ষোড়শ শতাব্দী থেকেই আরাকান প্রদেশে বাঙালি মুসলমানদের বাস ৷ ১৬৬৬ সালে আরাকান বাংলা চিটাগাং এর অংশ ছিল ৷ ১৭৮৫ তে বার্মিরা যুদ্ধে আরাকান দখল করলে ৩৫০০০আরাকানবাসি চিটাগাংয়ে আশ্রয় নেয় ৷ 

১৮২৬ সালে প্রথম অ্যাংলো–বার্মিজ যুদ্ধের পরে আরাকান প্রদেশকে ব্রিটিশরা ভারতের সঙ্গে যুক্ত করে নেয় ৷ ব্রিটিশদের উৎসাহে এবং প্রলোভনে বাংলায় বহু মানুষ সেখানে গিয়ে খামার শ্রমিক হিসাবে কাজ শুরু করেন ৷ কৃষি কাজে দক্ষতা ও কর্মকুশলতার ফলে আরাকান প্রদেশে বাঙালি রোহিঙ্গাদের প্রতিপত্তি বেড়ে যায় ৷ কোনও নির্দিষ্ট সীমানা না থাকায় চিটাগাংয়ের হাজার হাজার বাঙালি আরাকানে চলে যান ৷ ধান চাষে সস্তায় মজুর পাওয়ার তাগিদে আরাকান সহ বার্মার আদি বাসিন্দারাও বাঙালিদের উৎসাহিত করতে থাকে। ১৯২৭ সাল নাগাদ অনেক জায়গাতেই ভারতীয়রা সংখ্যাগুরু হয়ে ওঠে ৷

১৯৪০ সালে পাকিস্তান আন্দোলনের সময় পশ্চিম বার্মার রোহিঙ্গারা পূর্ব পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য আন্দোলন শুরু করে ৷ ১৯৪৮ সালের জানুয়ারিতে বার্মার স্বাধীনতার পরেও তাদের প্রয়াস অব্যাহত ছিল ৷ কিন্তু মোহাম্মদ আলী জিন্না বার্মার লোকেদের বিরুদ্ধে কোনও কার্যক্রমকে সমর্থন করা হবে না ঘোষণা করতেই রোহিঙ্গারা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে। বার্মার মিলিটারী রোহিঙ্গাদের দমন করার জন্য সক্রিয় হয়ে ওঠে ৷ ১৯৭৪ সালে তারা রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়ল ৷ 

সামরিক রাষ্ট্রের নতুন আইন ইমারজেন্সি সিটিজেনশিপ অ্যাক্ট অনুযায়ী, 'বার্মিদের কিং ড্রাগন অপারেশন ইন আরাকান' আইনের বিরুদ্ধে দেশে ১৯৭৮ সালের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন শুরু হল। প্রচন্ড অত্যাচার ও নিপীড়নের মুখোমুখি হয়ে রোহিঙ্গা মানুষেরা বাংলাদেশের নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশের চট্টগ্রামে চলে আসে বাঁচার স্বার্থে। ২০১৬-র জুনে প্রকাশিত হয় ইউ এন এইচ সি আর একটি রিপোর্ট ৷ এই রিপোর্টে রোহিঙ্গাদের উপর পাশবিক অত্যাচারের এক মর্মস্পর্শী বিবরণ ফুটে ওঠে ৷‌.....‌(‌চলবে)‌



No comments:

Post a Comment