Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Friday, 13 August 2021

দিনের টুকিটাকি : ‌১৩ আগস্ট, ২০২১

 বামেদের ১৯ দফা দাবী

বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে শুক্রবার বনগাঁ পুর প্রশাসকের কাছে ১৯ দফা দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি জমা দেওয়া হল। এই কর্মসূচিতে অংশ নেন পীযুষকান্তি সাহা, সুমিত কর, অসীম ঘোষ, অনিমা চক্রবর্তী, অমল সাধু প্রমুখ বাম নেতানেত্রীরা। এদিনের দাবিসনদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল, অবিলম্বে পুর নির্বাচন করে নির্বাচিত জন প্রতিনিধিদের মাধ্যমে উন্নয়নমূলক কাজ করতে হবে। ভ্যাকসিন পাওযার ক্ষেত্রে আরও স্বচ্ছতা আনতে ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি পুর এলাকায় এপর্যন্ত কত মানুষ ভ্যাকসিন পেয়েছেন, সেব্যাপারে শ্বেতপত্র প্রকাশ করতে হবে। পুর এলাকার যাদের এখনও পর্যন্ত ডিজিটাল রেশন কার্ড হয় নি, তাঁদের জন্য সেই ব্যবস্থা করতে হবে। ততদিন ফুড কুপনের ব্যবস্থা করতে হবে। স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড, বন্ধ হয়ে যাওয়া ভাতা সহ অন্যান্য সরকারি প্রকল্পের সুবিধা যোগ্য উপভোক্তাদের পাবার ব্যবস্থা করতে হবে। যশোর রোডের যান নিয়ন্ত্রন, অধিগৃহীত বনগাঁ সেন্ট্রাল কো–অপারেটিভের কর্মীদের কাজ নিশ্চিত করতে সেটি পুনরুজ্জীবনের ব্যবস্থা করা ইত্যাদি।


ক্যাথলিক চার্চে ৪৫০ জনের ভ‍্যাকসিন

বনগাঁ মহকুমার বিভিন্ন চার্চের সঙ্গে যুক্তদের করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করল বনগাঁ পুরসভা। চার্চের রাজ্যের এক কর্মকর্তার বিশেষ অনুরোধে এই ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করে পুর কর্তৃপক্ষ। পুরসভার এই ভূমিকায় খুশি চার্চ কর্তৃপক্ষ। বনগাঁ পুরসভার প্রশাসক গোপাল শেঠ জানান, দিন কয়েক আগে ক্যাথলিক চার্চের পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি জ‍্যাসলীনা অ্যাঞ্জেল আমার কাছে আবেদন করেন যে, বনগাঁ এলাকায় যতগুলি ক্যাথলিক চার্চ আছে, সেখানে যুক্তদের করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য। সেই অনুরোধমতো জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের ব্যবস্থাপনায় শুক্রবার ছয়ঘড়িয়া ক্যাথলিক চার্চে ৪৫০ জনের ভ‍্যাকসিন দেওয়ার ব‍্যবস্থা করা হয়। এদিনের কর্মসূচিতে পুর প্রশাসকের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা:‌ মৃগাঙ্ক সাহা রায় সহ অন্যান্যরা।


হাবড়ায় আক্রান্ত বিজেপি কর্মী

ওষুধ কিনতে বেরিয়ে আক্রান্ত হলেন এক বিজেপি কর্মী। উত্তর ২৪ পরগনার  হাবরা পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা ওই আক্রান্তের নাম সানি সাহা। তিনি এলাকায় বিজেপি কর্মী বলে পরিচিত। অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাতে ওষুধ কেনার জন্য বাইরে বেরোনোর পর উত্তর হাবরা ইউনাইটেড ক্লাবের সামনে স্থানীয় তৃণমূল কর্মী বলে পরিচিত সন্তু ঘোষ ও সুরজিৎ সিকদার সানির ওপর চড়াও হয়। লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। রাতেই হাবরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সানিকে। এই ঘটনায় হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে। হাবরা পৌর উত্তর মন্ডল সভাপতি ভাস্কর ব্যানার্জি বলেন, ভোট পরবর্তী হিংসা লেগেই রয়েছে বিজেপি কর্মীদের ওপর। একাধিক হুমকি ও মারধরের ঘটনা ঘটছে। সানি সাহা বিজেপির একনিষ্ঠ কর্মী। যদিও টাউন তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সিতাংশু দাস জানান, মারধরের ঘটনা তিনি শুনেছেন কিন্তু অভিযুক্তরা কেউই তৃণমূল কর্মী নয়। এর সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের কোন যোগাযোগ নেই। 


উদ্ধার ভ্যান রিক্সা

আবারও হাবরা থানার বড় সাফল্য। চুরি যাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে উদ্ধার ভ্যান রিক্সা। গতকাল রাতে পশ্চিম বানিপুর রেল কলোনির বাসিন্দা দেবের নস্করের বাড়ি থেকে একটি ব্যাটারি চালিত ভ্যান চুরি  যায়। এই ভ্যানের উপরই তাঁর ৫ জনের সংসার চলে। সেই ভ্যান চুরি হয়ে যাওয়ায় তিনি অসহায় হয়ে পড়েন। আজ সকালে হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। হাবরা থানা পুলিশ তদন্তে নেমে হাবরার মথুরাপুর মাঠপাড়ার খাল ধার থেকে ভ্যানটি উদ্ধার করে। গ্রেপ্তার করা হয় সোমনাথ ব্যানার্জি নামে এক দাগী চোরকে। এদিন রাতে হাবরা থানার পুলিশ দেবের নস্করকে ডেকে তাঁর ভ্যানটির চাবি তাঁর হাতে তুলে দেয়। ভ্যান ফিরে পেয়ে আপ্লুত দেবের নস্কর বলেন, 'আমি চির কৃতজ্ঞ হাবরা থানা প্রশাসনের কাছে।' 



No comments:

Post a Comment